ধোবাউড়ায় ৯ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানি ও মারধরের অভিযোগ

ধোবাউড়া (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধিঃ ময়মনসিংহের ধোবাউড়া উপজেলার মুন্সিরহাট মুসলিম ইনস্টিটিউশন এর ৯ম শ্রেণিতে পড়ুয়া এক কিশোরীকে মারধর শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠেছে একইগ্রামের প্রতিবেশী সাগর ও তার মা কল্পনার বিরুদ্ধে।
এ ঘটনায় ধোবাউড়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ঐ কিশোরীর পিতা তফাজ্জল হোসেন।

অভিযোগে সূত্রে জানা যায়, উপজেলার পশ্চিম শ্রীপুর এলাকার সাগর মিয়া দীর্ঘদিন ধরে ঐ স্কুলে যাওয়ার পথে কিশোরীর পথরোধ করে উত্যক্ত করে আসছিলো। ঘটনার দিন গত ২৮ জুন দুপুরে ঐ কিশোরীকে বাড়িতে একা পেয়ে কিশোরীর গোসলের ভিডিও মোবাইলে ধারনের চেষ্টা করলে কিশোরী বিষয়টি বুঝতে পেরে সাগর মিয়াকে ভিডিও করতে বাঁধা দেয়। এসময় বিবাদী সাগর মিয়া, তার মা ও নানিকে সাথে নিয়ে এসে কিশোরীকে বাড়ি থেকে তুলে সাগর মিয়ার নানির বাড়িতে নিয়ে যায় । সেখানে নিয়ে কিশোরীকে মারধর করে ও প্রাণনাশের হুমকি দেয়।

পরবর্তীতে কিশোরীর চিৎকারে প্রতিবেশীরা এসে উদ্ধার করে কিশোরীর চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সএ কর্মরত ডাক্তারগণ প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

কিশোরীর পিতা বলেন, তারা আমার মেয়েকে মারধর, শরীরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থানে আঘাত করলো, শ্লীলতাহানি করে মামলার হাত থেকে বাঁচার জন্য নিজেরাই ঘটনা সাজিয়ে পরিকল্পিতভাবে আমাদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেছে। আমার স্কুল পড়ুয়া মেয়ের মানসিক শারীরিক যে সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে তা যেন আর কারো না হয় এ ঘটনার সুষ্ঠ বিচার দাবী করছি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ধোবাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ চাঁন মিয়া বলেন, বিষয়টি আমি খতিয়ে দেখব এবং প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *