টেন্ডার ছাড়াই স্কুলের মালামাল বিক্রির অভিযোগ সভাপতির বিরুদ্ধে

টেন্ডার ছাড়াই স্কুলের মালামাল বিক্রির অভিযোগ সভাপতির বিরুদ্ধে

ঈশ্বরগঞ্জ প্রতিনিধিঃ ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার ৪০ নং হারুয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি এড. মোস্তাফিজুর রহমান চকদারের বিরুদ্ধে ওই স্কুলের লোহার বেঞ্চ টেবিল বিক্রি করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এতে স্থানীয় এলাকাবাসীর মাঝে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার মাইজবাগ ইউনিয়নের ওই বিদ্যালয়ের সভাপতি এড. মোস্তাফিজুর রহমান চকদার সরকারী নিয়মের তোয়াক্কা না করে বিদ্যালয়ের পুরাতন ২শ ৮কেজি লোহার বেঞ্চ ও টেবিলের ফ্রেম ভাঙ্গারি দোকানে বিক্রি করে দেন। শনিবার সকালে ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ আঞ্চলিক সড়কের পাশে হারুয়া বাজারে জামাল হোসেনের ভাঙ্গারির দোকানে এ বেঞ্চ ও টেবিলের লোহার ফ্রেমগুলো বিক্রি করা হয়।

সরকারী নিয়মানুযায়ী স্কুলের জরাজীর্ণ ও পুরাতন মালামাল প্রকাশ্যে নিলামে বিক্রির বিধান রয়েছে। কিন্তু তিনি বিধান না মেনে ওই মালামাল নিলাম ছাড়াই অবৈধ পন্থায় বিক্রি করে দেন। এছাড়াও লোহার বেঞ্চ ও টেবিলের কাঠগুলো স্কুলের সহ-সভাপতি চাঁন মিয়া ও অভিভাবক সদস্য অলকা রানী বন্টন করে নিয়ে যান।

হারুয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি এড. মোস্তাফিজুর রহমান চকদারের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, স্কুলের সীমানায় গাছ লাগানোর জন্য আমি এ মালামালগুলো বিক্রি করেছি। নিলাম কমিটিকে অবহিত না করে বিক্রি করার কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, স্কুল কমিটির সভাপতি হিসেবে এতটুকু করতে পারিনা? তাহলে কমিটির কাজটা কি ?

এ বিষয়ে স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা শরীফা বেগম বলেন, আমার জানামতে বেঞ্চগুলো স্কুলের একটি কক্ষে তালাবদ্ধ রয়েছে। বিক্রয়ের বিষয়টি আমার জানা নেই।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নিলুফার হাকিম বলেন, বিদ্যালয়ের কোন মালামাল নিলাম কমিটির টেন্ডার ছাড়া বিক্রি করার নিয়ম নেই। বিষয়টি উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার রেজাউল করিমকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তিনি তদন্তে ঘটনার সত্যতা পেয়েছেন। বিক্রয়কৃত মালামাল ওই দোকানেই রক্ষিত আছে। এ বিষয়ে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে পরামর্শ করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *